মজার রান্না ডেস্ক: আপনাদের জন্য এখন দেওয়া হচ্ছে কয়েকটি মজার মিষ্টির রেসিপি। এগুলো সবই সন্দেশের রেসিপি। দেখে নিন একসঙ্গে ৭ প্রকারের সন্দেশের রেসিপি

সেমাই সন্দেশ

উপকরণঃ লাচ্ছা সেমাই ২ কাপ,কনডেন্স মিল্ক ১ কাপ,ঘি ২ টেবিল চামুচ,এলাচ গুঁড়া সামান্য,মাওয়া পরিমানমত,বাদাম/ কিসমিস (সাজানোর জন্য)

তৈরি করার নিয়মঃ প্যানে ঘি হালকা গরম করে লাচ্ছা সেমাইগুলো অল্প আচে ভেজে নিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন সেমাই পুড়ে না যায়। এবার কনডেন্স মিল্ক আর এলাচ গুঁড়া দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে সন্দেসের ঘনত্ব আসলে চুলে থেকে নামিয়ে ঘি মাখানো একটা ফ্লাট প্লেটে বিছিয়ে মাওয়া গুঁড়া ওপর দিয়ে ছিটিয়ে দিতে হবে। সন্দেসটা একটু ঠান্ডা হলে চাকু দিয়ে পছন্দমত শেপে কেটে বাদাম বা কিসমিস দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

মাওয়ার উপকরণ ও বানানোর নিয়মঃ গুড়া চিনি ১ চা চামুচ, ঘি ১ চা চামুচ, গুঁড়া দুধ ৩/৪ টেবিল চামুচ, সামান্য গোলাপ জল আর পরিমাণ মতো তরল দুধ মিশিয়ে নিয়ে মাওয়া বানানো যায়।

ছাপ সন্দেশ

উপকরণ: ছানা ১/২ কেজি,চিনি ১/২ কাপ, চিনি ৩/৪ কাপ

প্রণালী:১। ছড়ানো একটি কড়াইয়ে চারভাগের তিনভাগ ছানার সাথে চিনি মিশিয়ে জ্বাল দাও। উনুনের আঁচ কম রেখে ছানা কড়াইয়ে ছড়িয়ে দিয়ে ঘন ঘন নাড়বে।২। ছানা আঠালো হলে নামিয়ে এলাচের গুঁড়া ও বাকি ছানা মিশাও। ট্রে বা থালায় ছানা ঢেলে ছড়িয়ে রাখ।৩। কয়েখ ঘন্টা পরে ছানা সম্পুর্ণভাবে ঠান্ডা হলে এবং পানি শুকালে খুব মসৃণ করে মথে নাও। ছানা ১৬ ভাগ কর। প্রত্যেক ভাগ গোল করে ছাঁচের উপর রেখে হাতের তালু দিয়ে চেপে দাও। ব্যাস হয়ে গেলো।

পেড়া সন্দেশ

উপকরণ :খোয়া দেড় কাপ,গোটা চিনি বা গুঁড়া চিনি ১/২ কাপ বা স্বাদমতো,ঘি সামান্য

প্রণালী :১। চুলায় একটা নন-স্টিক প্যান অল্প আঁচে গরম করে নিয়ে খোয়া ঢেলে দিন। তারপর মিনিট ৩-৪ একটা কাঠের চামচ দিয়ে নেড়ে নেড়ে ভুনে নিন। তারপর চিনি যোগ করে আবার নাড়তে থাকুন। আরো মিনিট ২-৪ পর নামিয়ে নিন।২। নামানোর পর নেড়ে একটু ঠান্ডা করে নিন। হাতের তালুতে সহ্য হয় এমন গরম থাকতেই মিশ্রণ টা দিয়ে পেড়া বানিয়ে নিতে হবে। গরম অবস্থায় নরম দেখালেও ঠান্ডা হলে অনেকটা টাইট হয়ে যাবে। এর জন্য হাতে ঘি মাখিয়ে ইচ্ছেমতো শেপ দিয়ে নিন। চাইলে নকশা কাটা ছাঁচে বসিয়েও বানাতে পারেন। হয়ে গেলে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।এইতো গেলো পেড়া’র রেসিপি। আমি জানি এই রেসিপি পড়ে অনেকেই জানতে চাইবেন খোয়া কি ? খোয়া কোথায় পাবো? কেমনে বানাতে হয় ? কেনা যাবে কিনা ইত্যাদি ইত্যাদি।

খোয়া তৈরি:খোয়া আর মাওয়া একই জিনিস। এটা আসলে মিল্ক সলিড। আপনি চাইলে এটা কিনেও নিতে পারেন। মিষ্টির দোকান বা সুপার শপ গুলোতে পাওয়া যাবে। বাসায় বানাতে চাইলেও বানানো যাবে। অনেক ভাবেই খোয়া বা মাওয়া বানানো যায়, তবে যেভাবে করেছি তার জন্য আপনাদের

যা যা লাগবে:ছানা ১ কাপ,গুঁড়া দুধ ১/৩ কাপ, তরল দুধ ১/৩ কাপ,বাটার/ ঘি ৩ টেবিল চামচ

প্রণালী :১। একটা নন-স্টিক প্যান অল্প আঁচে গরম করে নিয়ে বাটার বা ঘি যেটা পছন্দ দিয়ে গলিয়ে নিন। আমি বাটার দিয়ে করেছি। বাটার গোলে গেলে এতে তরল ও গুঁড়া দুধ দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। তারপর এতে ছানা ঢেলে ক্রমাগত নেড়ে নেড়ে মিশাতে থাকুন। এমন ভাবে মেশাবেন যাতে কোনো দলা পাকিয়ে না থাকে বা তলায় লেগে না যায় ।২। মিশ্রণটা দেখতে প্রথমে হালুয়ার মতো লাগবে তারপর আস্তে আস্তে একটা সফট ডো এর টেক্সার এ চলে আসবে। আর আপনাকে কিন্তু নাড়ানাড়ি করে যেতেই হবে। যেহেতু আঁচ অনেক কম থাকবে পুরোপুরি তৈরী হতে আপনার ৭ থেকে ১০ মিনিটের মতো লাগতে পারে।৩। হয়ে গেলে নামিয়ে একটু ঠান্ডা করে নিন। এইতো আপনার খোয়া তৈরী হয়ে গেলো।

সন্দেশ ১

উপকরণঃ• গুঁড়া দুধ- ১.৫ কাপ,• কনডেন্স মিল্ক- ১ টিন,• বাটার- ৮ চা চামচ, • ছোট এলাচ- ৪ টি,• বাদাম ও কিশমিস- পরিমাণ মত।

প্রনালীঃ*ননস্টীক প্যানে বাটার গলিয়ে কনডেন্সড মিল্ক ও গুঁড়া দুধ ভালো করে মেশাতে হবে।*হালকা আচে ঘন ঘন নাড়তে হবে, যতক্ষন না ঘন পেস্ট এর আকার ধারন করে।*ঘন হয়ে এলে ছোট এলাচ এর গুঁড়ো দিতে হবে এবং ভালো করে মেশাতে হবে।*এরপর চুলার জ্বাল বন্ধ করে ঠান্ডা হওয়ার জন্য কিছুক্ষন রেখে দিন।*ঠান্ডা হলে গোল গোল করে সন্দেশ আকারে বানিয়ে উপরে কিশমিস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন। (নিজের পছন্দমত সেপেও কেটে পারেন।)

সন্দেশ ২

উপকরণ:২৫০ গ্রাম গুঁড়ো দুধ,৩০০ মিলি গ্রাম ক্রিম,৪ কাপ চিনি, কাজু বাদাম কুচি,এলাচি গুঁড়ো,পেস্তা বাদাম কুচি

প্রণালী:১। একটি পাত্রে গুঁড়ো দুধ, ক্রিম, চিনি একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিন।২। এমনভাবে মিশিয়ে নেবেন চিনির দানা যাতে ভাল ভাবে মিশে যায়।৩। মিশ্রণটি এখন ১ মিনিটের জন্য মাইক্রোওয়েভ দিন। এক মিনিট পর মাইক্রো ওয়েভ থেকে বের করে মিশ্রণটি ভালো করে মিশিয়ে নিন।৪। তারপর আবার ৪ মিনিটের জন্য মিশ্রণটি মাইক্রোওয়েভে দিন।৫। ৪ মিনিট মিশ্রণটি বের করে এতে এলাচি গুঁড়ো, বাদাম কুচি দিয়ে আবার ভাল করে মেশান।৬। এখন একটি ট্রেতে তেল বা মাখন লাগিয়ে নিন। এতে মিশ্রণটি ঢেলে দিন।৭। এই মিশ্রণটি আবার ১ মিনিটের জন্য মাইক্রোওয়েভে দিয়ে দিন।৮। এক মিনিট পর মাইক্রো ওভেন থেকে ট্রে বের করে আপনার পছন্দ মত আকৃতিতে কেটে ফেলুন।৯। এটি এক থেকে দুই ঘন্টা ঠান্ডা হতে দিন।

টিপস: ঠান্ডা হওয়ার আগে ট্রে থেকে সন্দেশ উঠানোর চেষ্টা করবেন না। ঠান্ডা হলে সন্দেশ একটি সুন্দর আকৃতি হবে।

প্রবাল সন্দেশ

উপকরণ:তরল দুধের ছানা ২ কাপ (২ লিটার দুধের)। গুঁড়াচিনি স্বাদ অনুযায়ী। কন্ডেন্সড মিল্ক ১/৩ কাপ বা তার থেকে সামান্য কম। লবণ এক চিমটি। মাওয়া ৩/৪ কাপ। ঘি ২ টেবিল-চামচ।এলাচগুঁড়া খুবই সামান্য। গোলাপ জল ৬/৭ ফোঁটা (ইচ্ছা)

মাওয়া তৈরি: গুঁড়া দুধ ৩/৪ কাপ। ঘি ২ টেবিল-চামচ। পানি ১ টেবিল-চামচ।

– সব ননস্টিক ফ্রাই প্যানে দিয়ে অল্প আঁচে নাড়ুন। চার, পাঁচ মিনিট পরে একটু গাঢ় রং হয়ে আসলে নামিয়ে নিন।
মাওয়া তৈরির সময় সাবধান থাকতে হবে। খুব দ্রুত পুড়ে যায়। ঠাণ্ডা হলে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে গুঁড়া করে নিন। বা চালনি দিয়ে চেলে নিতে পারেন।

ছানা তৈরি: দুধ ফুটে উঠলে চুলা থেকে নামিয়ে তিন, চার মিনিট পরে ৫ টেবিল-চামচ সিরকা ও ৫ টেবিল-চামচ পানি মিশিয়ে ঢেলে দিন। চার, পাঁচ মিনিট পরে পাতলা কাপড়ে তিনবার ধুয়ে পানি চিপে নিন।পাঁচ, ছয় ঘণ্টা বাতাসের নিচে ঝুলিয়ে রাখুন। পানি ভাব যেন খুবই কম থাকে । আমি ঝুলিয়ে রাখার পরে ফ্রিজে রেখে দেই পরের দিন সকালে তৈরি করি। এতে একদমই পানিভাব থাকে না ।

মাঝখানের পুরের জন্য: কোড়ানো নারিকেল ব্লেন্ডারে একটু ব্লেন্ড করা, পানি ছাড়া আধা কাপ। কন্ডেন্সড মিল্ক ২ থেকে ৩ টেবিল-চামচ। চিনি সামান্য (যদি লাগে) গোলাপ জল কয়েক ফোঁটা। ঘি ১ চা-চামচ।– ঘি দিয়ে নারিকেল হালকা ভেজে বাকি উপকরণ দিয়ে আঠালো পুর তৈরি করে নামিয়ে নিন।

পদ্ধতি: প্যানে ২ টেবিল-চামচ ঘি ও ছানা দিয়ে দিন। তিন, চার মিনিট পরে কন্ডেন্সড মিল্ক দিয়ে দিন। খুব দ্রুত নাড়তে থাকুন তানা হলে পোড়া লেগে যাবে।শুকনা হয়ে আসলে এলাচ, গোলাপ জল ও লবণ দিয়ে দিন।ছানা চুলায় ১০ থেকে ১৫ মিনিটের বেশি রাখবেন না। বেশি সময় রাখলে শক্ত হয়ে যাবে। এই সময়ের মধ্যেই সব উপকরণ দিয়ে পানি ভাব কমিয়ে নামিয়ে নিন।ঠাণ্ডা করে ছড়ানো পাত্রে ৩০ থেকে ৪০ মিনিটের জন্য ফ্রিজে রাখুন। ফ্রিজ থেকে বের করে মাওয়া ও চিনি খুব ভালো করে মিশিয়ে নিন।নারিকেলের ছোট ছোট বল তৈরি করুন। এই বল ছানার মাঝখানে দিয়ে মশ্রিণ গোল বল তৈরি করুন।মাওয়া বা গুঁড়া দুধে গড়িয়ে নিন। জোড় বাঁধার জন্য ফ্রিজে রেখে দিন।

পরিবেশন: ‍দু-তিন ঘণ্টা পরে পরিবেশন করুন দারুন মজাদার প্রবাল সন্দেশ।

জাফরানি প্যারা

উপকরণ:তরল দুধ ১ কেজি,সিরকা ১ টেবল চামচ,জাফরান ১ চিমটি, পাউডার চিনি ১ টেবল চামচ,ঘি সামান্য,পেস্তা ইচ্ছেমত।

প্রণালী:প্রথমে দুধ জ্বাল দিয়ে বলগ আসার সাথে সাথেই চুলা বন্ধ করে। ২ মিনিট পর তাতে ভিনেগার দিয়ে দুধ ফাটিয়ে নিয়ে ছানা মসলিন কাপড়ে ছেঁকে নিতে হবে।ছানার সবটুকু পানি ঝরে গেলে, বড় মাপের পাত্রে ছানাকে হাতের তালু দিয়ে ঘষে ঘষে মসৃন করে নিতে হবে। এবার ছানাতে জাফরান,পাউডার চিনি, মিশিয়ে ননস্টিক প্যানে খুব মৃদু আঁচে ৪/৫ মিনিট ছানার মিশ্রণকে শুকিয়ে নিন। মিশ্রণটি ঠান্ডা হলে হাতে ঘি লাগিয়ে পছন্দমত আকারে বানিয়ে পেস্তা কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।