মজার রান্না ডেস্ক: দিনের পর দিন কিচেন সিঙ্কে জমতেই থাকে এঁটো তৈজসপত্র। একটা সময়ে আর তা অবহেলা করা যায় না। তখন এই এঁটো জিনিসের পাহাড় কী করে ধুয়ে শেষ করবেন তা ভাবতে থাকেন। কিন্তু কিছু টিপস জানা থাকলে পাহাড়সমান এই কাজটাকেও সহজে মনে হবে। দেখে নিন টিপসগুলো-

১) তৈজসপত্র গুছিয়ে নিন

অনেক বেশি এঁটো জিনিস জমে গেলে আগে গুছিয়ে নিন। সবগুলো প্লেট একসাথে রাখুন। প্লেটের ওপর বাটিগুলোকে রাখুন। চামচগুলোকে একটা গ্লাস বা কাপে রাখুন। গ্লাসগুলো একপাশে করে রাখুন। অনেক বাড়িতেই সিঙ্কের নিচে আরেকটি কল থাকে, সেখানে হাঁড়ি, কড়াই, ফ্রাইপ্যান রাখতে পারেন। এভাবে গুছিয়ে নিলে আপনি বুঝতে পারবেন, আসলে খুব বেশি জিনিস নেই। একটু সময় পেলেই আপনি এগুলো ধুয়ে ফেলতে পারবেন।

২) ভিজিয়ে রাখুন

প্লেট যতই ময়লা হোক না কেন, আগে থেকে ভিজিয়ে রাখলে এগুলো ধুতে পারবেন কম সময়ে। শুধু পানি দিয়েই ভিজিয়ে রাখতে পারেন। তবে হালকা কুসুম গরম পানিতে সাবান দিয়ে তাতে এঁটো জিনিস ভিজিয়ে রাখলে ময়লা উঠে যায় দ্রুত।

৩) ভালো সাবান ব্যবহার করুন

অনেকেই সাধারণ সাবান, বা কাপড় ধোয়ার গুঁড়ো সাবান দিয়েই বাসনকোসন ধুয়ে ফেলেন। তা করবেন না। ভালো মানের ডিশ ওয়াশিং সাবান ব্যবহার করুন।

৪) ভালো স্পঞ্জ ব্যবহার করুন

এক্ষেত্রেও কৃপণতা করার কিছু নেই। ভালো মানের স্পঞ্জ ব্যবহার করুন ধোয়ার সময়ে, যাতে তা ধোয়ার সময়ে ভেঙ্গে বা ছিঁড়ে না যায়। গ্লাস ও বোতল ধোয়ার জন্য বোতলব্রাশ ব্যবহার করুন।

৫) গরম পানি ও গ্লাভস ব্যবহার করুন

পানি গরম করে নিন। হাতে কিচেন গ্লাভস পরে নিন। এবার ধোয়া শুরু করুন। গরম পানিতে যেমন ময়লা দ্রুত দূর হয়, তেমনি বাসনকোসন দ্রুত শুকিয়েও যায়।

৬) গান শুনুন

মেজাজ খারাপ করে এঁটো জিনিস ধুতে গেলে আপনার সময় এমনিতেই বেশি লাগবে। এ সময়ে মন ভালো রাখতে গান শুনুন।

৭) সাবান পরিষ্কার করে নিন

সাবান দিয়ে ধুলেই শুধু হবে না, ভালো করে কলের পানিতে সাবান ধুয়ে নিতে হবে। এতে প্লেটে বা প্যানে থাকা শেষ ময়লাটুকুও পরিষ্কার হয়ে যাবে। আগে ছোট জিনিস (যেমন চামচ) পরিষ্কার করুন। সবশেষে হাড়ি বা প্যান ধরনের জিনিসগুলো ধুয়ে নিন।

৮) টাইমার সেট করুন

মোবাইলের টাইমারে ১৫ বা ২০ মিনিট সেট করুন। এরপর এই সময়ের মাঝেই সবকিছু ধুয়ে তোলার চেষ্টা করুন। দেখবেন কাজটাকে আর একঘেয়ে মনে হচ্ছে না।

 

 

সুত্র: প্রিয়.কম