মজার রান্না ডেস্ক: গরুর মাংসের আচার আপনি দুই ভাবে করতে পারবেন। একটা হলো মাংস কে সরাসরি তেলে ভেজে নিয়ে করা। আর অপরটি হলো আগে মাংসকে মসলা দিয়ে সিদ্ধ করে নিয়ে তারপর তার আচার করা। যার যেভাবে ভালো লাগে সে সেভাবে করতে পারেন। সিদ্ধ করে করলে মাংস একদম শুটকির মতো শক্ত মনে হয়না এবং এর মধ্যে একটা জুসি ভাব থাকে। তাই এখানে আমি মাংস আগে আলাদা ভাবে সিদ্ধ করে আচার করার রেসিপি দিয়েছি।

আচারের মাংস সিদ্ধ করতে যা যা লাগবে:

১। হাড় চর্বি ছাড়া গরুর মাংস ২কাপ (আধা ইঞ্চি স্কয়ার করে কাটা, আপনি চাইলে পাতলা পাতলা স্লাইস ও করতে পারেন)

২। আদা বাটা ১চা চামচ

৩। রসুন বাটা ১চা চামচ

৪। ধনিয়া গুরা ১চা চামচ

৫। মরিচ গুড়া ১চা চামচ

৬। লবন আধা চা চামচ

৭। হলুদ গুড়া অল্প পরিমা

৮। পানি পরিমান মত ( প্রায় ২কাপ)

আচার তৈরীতে যা যা লাগবে

১। সরিষার তেল ২কাপ

২। তেজপাতা ১টা

৩। পাঁচ ফোঁড়ন গুড়া এক চা চামচ

৪। শুকনা মরিচ ১২-১৫ টা

৫। সরিষা বাটা ১চা চামচ

৬। ভিনেগার আধা কাপ

৭। গোটা রসুনের কোয়া এক কাপ

৮। গরম মসলার গুড়া আধা চা চামচ

৯। যে কোন টক ফল দিতে পারেন। আমি এই রেসিপিতে দেই নি।

আচার বানানোর প্রনালীঃ

১। প্রথমে সিদ্ধ করার সব মসলা মাংসের সাথে মিশিয়ে একটি পাতিলে চুলায় দিতে হবে।এর সাথে ২কাপ পানি যোগ করুন।

২। এরপর পাতিলে ঢাকনা দিয়ে মাংস পুরোপুরি সিদ্ধ করে নিন এবং সিদ্ধ হওয়ার পর মাংসের গায়ের পানি ভাল করে শুকিয়ে নিতে হবে। এক্ষেত্রে ননস্টিকি পাত্র হলে ভালো হয়। তাহলে নিচে লেগে যাবার সম্ভাবনা থাকেন। একদম ভাজা ভাজা করে নামাবেন।

৩। অন্য একটি কড়াই এ সরিষার তেল গরম করে নিয়ে তাতে তেজপাতা,পাঁচ ফোড়ন দিন।

৪।এবার শুকনা মরিচ দিয়ে হালকা ভাজুন ,ভিনেগার ও রসুনের কোয়া দিয়ে ২মিনিট অনবরত নাড়তে থাকুন।

৫।এবার এর সাথে আগে থেকে ভেজে রাখা সিদ্ধ মাংস যোগ করতে হবে । এসময় চুলার আঁচ মিডিয়ামে রাখুন নয়ত মাংস শক্ত হয়ে যাবে।

৬। কিছুক্ষন পর মাংসের রং কালচে ভাজা ভাজা হলে গরম মসলা ও পাঁচ ফোঁড়ন গুড়া দিয়ে মিনিট খানেক চুলায় রেখে নাড়ুন।

৭। এরপর চুলার আঁচ বন্ধ করে দিন । ঢাকনা খুলে রেখে মাংস ঠাণ্ডা করে নিন।

৮। এরপর বয়ামে রাখুন। মাঝে মাঝে ঢাকনা খুলে রোদে দিবেন।

এবার পরিবেশন করুন খুবই মজাদার গরুর মাংস এর আচার। বয়াম খালি হয়ে যাবে নিমিষেই। তাই পুরোটা সার্ভ করে দিবেন না একেবারে।

সূত্র: স্বপ্ন ডানা