fbpx

এই ৭টি রেসেপি পারফেক্ট ভাবে শিখে নিতে পারলে আপনি হবেন বাদশাহী স্বাদের রাজা

 

সসেজে পোলাও–

উপকরণ:মুগ ডাল ১ কাপ,পোলাওয়ের চাল ২ কাপ,দারুচিনি ও এলাচি ৪টি,কাঁচা মরিচ ১০/১২টি,গোটা সরিষা ১ চা-চামচ,আস্ত জিরা ১ চা-চামচ,সয়াবিন তেল আধা কাপ,রসুন কুচি ২ টেবিল চামচ,পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ,লবণ পরিমাণমতো,সসেজ (ছোট) ১ প্যাকেট,আদা বাটা ১ টেবিল চামচ,রসুন বাটা ১ চা-চামচ,পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ,পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ,টক দই সিকি কাপ,শুকনা মরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ,কাঁচা মরিচ ১০/১২টা,সয়াবিন তেল আধা কাপদারুচিনি-এলাচি-জাফরান ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি:মুগ ডাল সামান্য ভেজে চালের সঙ্গে মিশিয়ে ১০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। পাত্রে তেল দিয়ে সরিষা ও জিরার ফোড়ন দিয়ে রসুন কুচি, পেঁয়াজ কুচি ও কাঁচা মরিচ দিয়ে নাড়ুন।পেঁয়াজ যখন চকচকে হবে, তখন চাল ও ডালের মিশ্রণ দিয়ে ৩/৪ মিনিট কষাতে হবে। এবার চাল ও ডালের দেড় গুণ গরম পানি ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে ঢেকে দিন।পানি যখন চালের সমান হবে, তখন ভালোভাবে নেড়ে লবণ চেখে অল্প জ্বালে তাওয়ার ওপর দমে বসাতে হবে।এবারে সসেজ টুকরো করে কেটে নিতে হবে। পাত্রে তেল গরম করে পেঁয়াজ দিতে হবে। পেঁয়াজ বাদামি হলে গরমমসলা গুঁড়া ছাড়া বাকি সব গুঁড়া মসলা ও বাটা মসলা দই ও এক কাপ পানি দিয়ে কষাতে হবে।মসলা কষানো হলে সসেজ টুকরাগুলো কাঁচা মরিচ দিয়ে ৩/৪ মিনিট কষিয়ে আধা কাপ পানি দিয়ে দমে বসাতে হবে।এই সময় গরমমসলার গুঁড়াও দিতে হবে। পাঁচ মিনিট দমে রাখার পর মুগ পোলাওয়ের সঙ্গে মিশিয়ে ১০ মিনিটের জন্য আবার দমে বসাতে হবে। এবার পরিবেশন।

বাটার উইথ লেমন রাইস–

উপকরণসিদ্ধ ভাত ২ কাপ,মাখন ৫০ গ্রাম,লেবুর রস ২ টেবিল চামচ,লেমন জিস্ট ১ টেবিল চামচ,লবণ স্বাদমতো,চিনি ১ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন–ফ্রাইপ্যানে মাখন গরম করে তাতে ভাত লবণ দিয়ে একটু ভেজে নিন।লেবুর রস, চিনি দিয়ে ভালো করে নেড়ে লেমন জিস্ট (লেবুর সবুজ অংশ কুচি করা) দিয়ে নামিয়ে ওপরে ১ টেবিল চামচ মাখন ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

টমেটো পোলাও–

উপকরণচাল ২ কাপ,পেঁয়াজ কাটা ৩টা,টমেটো কাটা ১ কাপ,ঘি আধা কাপ,আস্ত জিরা আধা চা চামচ,মরিচ কুচি ৪টা,টমেটো পিউরি ৩ টেবিল চামচ,লবণ স্বাদমতো,রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ,আদা কুচি ১ চা চামচ,লবণ স্বাদমতো,টমেটো জুস ১ কাপ,পেঁয়াজ বেরেস্তা সাজানোর জন্য আধা কাপ,এলাচ ৩টি,দারুচিনি ৩ টুকরালবঙ্গ ৩টি।

যেভাবে তৈরি করবেন–চাল আধা সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিন।ফ্রাইপ্যানে ঘি গরম করে এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, জিরার ফোড়ন দিন।এর মধ্যে পেঁয়াজ, রসুন, আদা ও টমেটো দিন। একটু নেড়ে টমেটো পিউরি, লবণ, মরিচ দিন।ভালো করে নেড়ে টমেটো জুস দিন। এরপর সিদ্ধ চাল মিশিয়ে ৩ মিনিট পর নামিয়ে ওপরে বেরেস্তা দিয়ে পরিবেশন করুন।

চিকেন বলের কোর্মা–

উপকরণ:-১মুরগির মিহি কিমা ২ কাপ,আদা বাটা ২ চা-চামচ,রসুন বাটা ১ চা-চামচ,মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ,লবণ ১ চা-চামচ,পাউরুটি (বড়) ৩ টুকরো,তরল দুধ ১ কাপ,নারকেল বাটা ১ টেবিল চামচ,বেরেস্তা গুঁড়া ২ টেবিল চামচ ও গরমমসলা গুঁড়া ১ চা-চামচ।উপকরণ:-২–আদা বাটা ১ টেবিল চামচ,রসুন বাটা আধা চা-চামচ,পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ,মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ,লবণ পরিমাণমতো,পেস্তাদানা বাটা ১ টেবিল চামচ,পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা টেবিল চামচ,কিশমিশ ২ টেবিল চামচ,তেঁতুলের মাড় ১ টেবিল চামচ,চিনি ২ টেবিল চামচ,তরল দুধ দেড় কাপ,কাঁচা মরিচ ৫/৬টা,ঘি আধা কাপ ও তেল প্রয়োজনমতো।

প্রণালি:পাউরুটির পাশের অংশ ফেলে দুধ দিয়ে ভিজিয়ে চিপে মুরগির কিমার সঙ্গে মেশাতে হবে। সঙ্গে বাকি সব উপকরণও ভালোভাবে মিশিয়ে গোল করে বল বানাতে হবে।গরম তেলে হালকা রং করে ভেজে তুলে নিন।এবারে অন্য পাত্রে তেল ও অর্ধেক ঘি দিয়ে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিয়ে কষাতে হবে।ভালোভাবে কষানো হলে দুধ দিয়ে মাখন ফুটে উঠলে তখন চিকেন বলগুলো বিছিয়ে দিন। তারপর একে একে কাঁচা মরিচ, চিনি, তেঁতুল, বেরেস্তা ও বাকি ঘি দিয়ে দমে বসাতে হবে।যখন ঝোল ঘন হয়ে তেল ওপরে উঠবে, তখন নামিয়ে পরিবেশন।এই বলগুলো না ভেজে গরম পানিতে ভাপে দিয়েও একইভাবে কোরমা করা যায়।

সবজি পোলাও–

উপকরণচাল আধা কেজি,গাজর, বরবটি, মটরশুঁটি, ক্যাপসিকাম- সব মিলিয়ে ২ কাপ,আদা বাটা ২ চা চামচ,রসুন বাটা ১ চা চামচ,গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ,জিরা ভাজা গুঁড়া আধা চা চামচ,টক দই ২ টেবিল চামচ,এলাচ ২টা,দারুচিনি ২ টুকরা,কাঁচা মরিচ ৪টি,পেঁয়াজ কুচি ৪টা,তেজপাতা ২টা,লবণ স্বাদমতো,তেল ও ঘি একত্রে মেশানো ৫ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন– চাল পানিতে ভিজিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা।একটি সসপ্যানে ঘি গরম করে গোটা গরম মসলা, তেজপাতা, পেঁয়াজ কুচিসহ একে একে সব মসলা দিয়ে কষিয়ে সবজি দিন।ভালো করে নেড়ে ২-৩ মিনিট ঢেকে দিন। কষানো হলে পৌনে এক লিটার পানি দিন।পানি ফুটে উঠলে চাল দিন। ভালো করে নেড়ে ঢেকে দিন।পানি শুকিয়ে গেলে জ্বাল কমিয়ে ৬ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন।

বাটারপ্রন বেকড ভেজিটেবল

উপকরণ :গাজর ১ কাপ,বরবটি আধা কাপ,পেঁপে টুকরা ১ কাপ,ক্যাপসিকাম ১টা,চাল কুমড়া (জালি) ১ কাপ,চিংড়ি মাছ ১ কাপ,পেঁয়াজ ভাজখোলা ১ কাপ,গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ,কাঁচা মরিচ কুচি ১ চা-চামচ,সয়াসস ২ টেবিল চামচ,চিনি ১ টেবিল চামচ,সেদ্ধ ডিম ২টা,ব্রেড ক্রাম্ব ২ টেবিল চামচ,মাখন ২৫ গ্রাম ওক্রিম চিজ ৪ টেবিল চামচ।

প্রণালি:সবজি টুকরা করে কেটে লবণ দিয়ে আধা সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিন। ননস্টিক প্যানে মাখন গলিয়ে সামান্য লবণ দিয়ে চিংড়ি মাছ ২/৩ মিনিট ভাজার পর পেঁয়াজ এবং সেদ্ধ সবজি দিয়ে আবার ভাজতে হবে।একে একে গোলমরিচ গুঁড়া, কাঁচা মরিচ কুচি, সয়াসস ও চিনি দিয়ে নেড়ে নামিয়ে নিন। ঠান্ডা হলে ক্রিম চিজে দিয়ে সবজিগুলো মিশিয়ে বেকিং ট্রে অথবা ছড়ানো সার্ভিং পাত্রে বিছিয়ে নিন।সবজির ওপর ডিম গোল গোল চাকা করে কেটে দিতে হবে। সবার ওপরে ব্রেড ক্রাম্ব ছড়িয়ে দিয়ে ১৮০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে বেক করতে হবে।৫/৭ মিনিট (বাদামি রং না হওয়া পর্যন্ত) রাখুন। এবার গরম গরম পরিবেশন করুন।

গরুর মাংস ভুনা–

উপকরণ:গরুর মাংস ২ কেজি, হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ,মরিচ গুঁড়া ২ টেবিল চামচ,পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, তেল ১ কাপ,তেজপাতা ২টি,এলাচ-দারুচিনি ৫টি,তরল দুধ ১ কাপ,আদা বাটা ২ টেবিল চামচ,রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ,জিরা বাটা ১ টেবিল চামচ,বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ,নারকেল বাটা ১ চামচ,পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ টেবিল চামচ,ফ্রেশ ক্রিম ২ টেবিল চামচ,গরমমসলা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ,কাঁচা মরিচ ১৫টি।

প্রণালি:মাংস অল্প আদা, রসুন, পানি, ২ টেবিল চামচ তেল ও লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে পানি শুকিয়ে নিতে হবে।এবার অন্য পাত্রে তেল দিয়ে পেঁয়াজ ভেজে বাকি মসলাগুলো দিয়ে সেদ্ধ করা মাংস কষাতে হবে।একটু কষিয়ে প্রয়োজনমতো গরম পানি ও ১ কাপ দুধ দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। একটু পর পেঁয়াজ বেরেস্তা ভেজে দিতে হবে।গরমমসলা গুঁড়া ও কাঁচা মরিচ দিয়ে ঢেকে দমে রান্না করতে হবে।সব শেষে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে মাংস যখন মাখা মাখা হয়ে তেলের ওপর উঠবে, তখন নামিয়ে নিতে হবে।পাউরুটি, পরোটা অথবা পোলাওয়ের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close