মজার রান্না ডেস্ক: ভালোবাসা দিবসে আমরা প্রিয়জনকে উপহার হিসেবে বিভিন্ন খাদ্য যেমন – চকলেট, ক্যান্ডি, কেক ইত্যাদি দিয়ে থাকি। কিন্তু এসবের মধ্যেও কিছু আছে যেগুলো উপহার হিসেবে পেতে কেউই পছন্দ করেন না।

এসব উপহার যে আপনার সঙ্গীর ভালো লাগবে না শুধু তা-ই নয়, অনেকেই এসব উপহার প্রচণ্ড অপছন্দ করেন। এগুলোর কোনো একটি সঙ্গীর হাতে তুলে দিলে হয়তো আপনার ভালোবাসা দিবসটিই আর উপভোগ করা হবে না। চলুন এমন ৯টি খাবার সম্পর্কে জেনে নিই, যেগুলো যেকেউ ভালোবাসা দিবসের উপহার হিসেবে অপছন্দ করেন।

১. অদ্ভুত আকৃতির চকলেট

খাবারের মধ্যে ভালোবাসা দিবসের উপহার হিসেবে প্রথম সারিতেই আছে চকলেট। কিন্তু এমনও হতে পারে চকলেট পেয়েই আপনার সঙ্গী রেগে গেলো। এমন হতে পারে তখনই যখন আপনি গতানুগতিক আকৃতির চকলেট ছেড়ে ভিন্ন আকৃতির চকলেট খুঁজতে যাবেন।

অন্যান্য দিনে অদ্ভুত আকৃতির চকলেট দিয়ে সঙ্গীর মন জয় করা গেলেও, ভালোবাসা দিবসে অদ্ভুত আকৃতির চকলেট একদমই নয়। আমার পরামর্শ থাকবে, এদিনের জন্য হৃদয়আকৃতির সাধারণ একটি চকলেট বাক্সই বেছে নিন। অন্যরকম কিছু উপহার দিতে গিয়ে দিনটি নষ্ট না করাই শ্রেয়।

২. বেকিং মিক্সেস

এমনিতে বেকিং মিক্সগুলোকে ভালোবাসা দিবসের জন্য ভালো উপহার মনে হলেও, অনেকেই এগুলো খুব অপছন্দ করেন। আপনি চাইলে আপনার সঙ্গীকে এদিন বেক করা তাজা কুকি উপহার দিতে পারেন। কেনই বা সংরক্ষণ করা কুকি বানানোর সব উপাদান দেবেন! বেকিং মিক্স উপহার না দিয়ে এদিন সঙ্গীর কোনো পছন্দের কুকি দিতে পারেন। কিন্তু উপহার কিনতে গিয়ে বেকিং মিক্স কিনবেন না।

৩. প্যাকেটজাত ক্যান্ডি

প্যাকেটজাত ক্যান্ডি হয়তো যেকোনো বাচ্চাকেই খুশি করবে। কিন্তু আপনার সঙ্গী নিশ্চয়ই কোনো বাচ্চা নয়। ভালোবাসা দিবসে সঙ্গীকে ক্যান্ডির প্যাকেট উপহার দেয়া থেকে বিরত থাকুন। আর এরমধ্যে যদি কিনে নিয়ে থাকেন তাহলে সেটাকে নিজের রাত জেগে সিনেমা দেখার সঙ্গী করে নিতে পারেন। দেখবেন সময় বেশ ভালো কাটবে। আর প্রিয়জনের জন্য ভালোবাসা দিবসের উপহার হিসেবে অন্যকিছু কিনে নিন।

৪. সস্তা ওয়াইন

ভালোবাসা দিবসের উপহার হিসেবে ওয়াইন নিঃসন্দেহে একটি চমৎকার উপহার। কিন্তু আপনি জানেন কি আদবকেতার হিসেবে সস্তা ওয়াইন উপহার দেয়া অপমানজনক। তথ্যটি না জেনে যদি এরমধ্যেই সস্তা কোনো ওয়াইন কিনে নিয়ে থাকেন, তাহলে এখনি এটি উপহারের তালিকা থেকে মুছে ফেলুন। এমন যেন না হয়, আপনার সঙ্গী অপমানবোধ করে ভালোবাসার দিনেই বিচ্ছেদের আহ্বান জানালো!

৫. অতিরিক্ত মিষ্টিজাতীয় চকলেট

অতিরিক্ত মিষ্টিজাতীয় চকলেট শুধু খেতেই স্বাদহীন নয়, ঘুমেরও উদ্রেক করে। ভালোবাসা দিবসে সঙ্গীকে এই ধরনের কোনো চকলেট দেয়া থেকে বিরত থাকুন। চকলেট সম্পর্কে ভালো ধারণা না থাকলে আগেই খোঁজখবর নিয়ে চকলেট কিনুন। চকলেট কেনার সময় কম মিষ্টি দেয়া এবং একটু আভিজাত্যপূর্ণ চকলেট বেছে নিন। সুস্বাদু এবং ভালো চকলেট উপহার পেতে আপনার প্রিয়জন বেশ পছন্দ করবে।

৬. ভোজ্য অন্তর্বাস

আপনি ভাবতেই পারেন ভোজ্য অন্তর্বাস আপনার সঙ্গীর খুব পছন্দ হবে। কিন্তু আসলে তা নয়। ভোজ্য অন্তর্বাসসমূহ দেখতে টপিকার মতো আকর্ষণীয় হলেও, সবাই এগুলো বেশ অপছন্দ করেন। এগুলো যেসব ক্যান্ডি দিয়ে বানানো হয়, সেগুলো খাওয়ার উপযোগী থাকে না। আবার এসব অন্তর্বাস পরিধান করারও উপযোগী নয়। তাই এগুলো কোনো কাজেই আসে না। ভোজ্য অন্তর্বাস উপহার পেয়ে আপনার সঙ্গী বেশ বিরক্ত হতে পারে। তাই এসব উপহার পরিহার করুন।

৭. ফাজ

ফাজ উপহার হিসেবে পেয়ে আপনার সঙ্গী অপছন্দ করতে পারে, এটুকু দেখে এই ভালোবাসা দিবসে সঙ্গী অপছন্দ করতে পারে এমন উপহারের তালিকাটিকে ভুল ভাববেন না। ফাজ খুবই সুস্বাদু। এমনও হতে পারে আপনার সঙ্গীর প্রিয় খাবার। কিন্তু ফাজ উপহার দেয়া অনেক ক্ষেত্রে এটা বোঝায় যে, আপনি সুন্দর কোনো উপহার দেয়ার চেষ্টাই করেননি। দায়সারাভাবে দোকান থেকে ফাজ কিনে দিয়ে দিয়েছেন। এসব কারণেই ফাজ উপহার না দেয়াই ভালো।

৮. কনভারসেশন হার্টস

কনভারসেশন হার্ট একধরনের ক্যান্ডি, যেগুলোতে বিভিন্ন শব্দ এবং ছোট ছোট বাক্য লেখা থাকে। এসব ক্যান্ডি বা কনভারসেশন হার্টগুলো ব্যবহার করা যায় সম্পর্কের আগে। যখন আপনি পছন্দের মানুষটিকে ভালোবাসার কথা বলতে লজ্জা পাচ্ছিলেন। এগুলো ব্যবহার করে ভালোবাসার কথা বুঝিয়ে দিতে পারেন। কিন্তু এধরনের উপহার প্রাপ্তবয়স্ক প্রেমিক/প্রেমিকাদের একজন অপরজনকে না দেয়াই ভালো। অনেকেই এগুলোকে বাচ্চামি ভেবে অপছন্দ করেন।

৯. চেরি কর্ডিয়ালস

চেরি চকলেটে ডুবিয়ে বানানো খাবারটি আদতে কোনো উপহারের তালিকাতেই পড়ে না। এসব বাচ্চাদের জন্য দাদী, নানীরা বানিয়ে দিতে ভালোবাসেন। ভালোবাসা দিবসের উপহার হিসেবে চেরি কর্ডিয়ালস দেয়া একদমই উচিত নয়। উপহার হিসেবে মজাদার এবং কিছুটা আভিজাত্যপূর্ণ চকলেটই বেছে নিন।

মনে রাখবেন, আপনি কাউকে কী উপহার দিচ্ছেন, তার ওপর ভিত্তি করে আপনার রুচিবোধ প্রকাশিত হয়। ভালোবাসা দিবসে সঙ্গীকে এমন ধরনের কোনো খাবার উপহার দেবেন না, যাতে সে অসন্তুষ্ট হয়। সঙ্গীর পছন্দের কোনো ডিজাইনের কেক অর্ডার দিয়ে বানিয়ে নিতে পারেন, পছন্দের চকলেটও কিনতে পারেন। লক্ষ্য রাখবেন, যে খাবারটিই উপহার দিন না কেন, তাতে যেন নান্দনিকতা প্রকাশ পায়।

 

 

 

সূত্র: Food Tips