মজার রান্না ডেস্ক: এই বর্ষায় চারপাশে তাকালেই দেখা যাবে অসুখবিসুখের হিড়িক লেগেছে যেন। ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া কিংবা বিভিন্ন জীবানুর কারণে পানিবাহিত, ঠাণ্ডাজনিত রোগগুলো যেন বেশিই হচ্ছে। ঠাণ্ডাজ্বরের পাশাপাশি পেটের কঠিন অসুখ যেমন ডায়রিয়া, কলেরা বেশিমাত্রায় হচ্ছে। এজন্য অবশ্য আমাদের গাফেলতিও যথেষ্ট। আমাদের সচেতনতার অভাবেই অসুখগুলো হচ্ছে বেশি, আমরা ভুগছিও বেশি। রোগগুলো ছেলেবুড়ো কাউকেই যেন ছাড়ছে না।

এই অবস্থায় সবচেয়ে বেশি সচেতন হতে হবে আমাদের খাওয়াদাওয়ায়। এই বর্ষার মৌসুমে তেমন কিছু সচেতনতার কথাই জানাচ্ছি আজকে-

সবার প্রথমে রাস্তার পাশে বিক্রি হওয়া খাবার খাওয়া বাদ দিন। কেননা এতে ধুলো ময়লা বেশি পড়ে। আর এই খাবার খেলে পেটের অসুখ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।অনেক সময় খাবার ঠিকমতো রান্না না করেই খাওয়া হয়। এতে হজমে সমস্যা দেখা দেয়। কাচা ফল বা সবজি যেমন শসা, টমোটো, আপেল খেলে তা অবশ্যই ধুয়ে খাবেন। অন্য সময়ের চেয়ে বর্ষার পানিতে ময়লা আরও বেশি থাকে। তাই বাসায় এনে পরিষ্কার পানিতে ধুয়ে তারপর খাবেন।পানির বিশুদ্ধতা নিশ্চিত না করে কখনই তা খাওয়া উচিত নয়। এই ঋতুতে এ ব্যাপারে আরও সচেতন হতে হবে। তাই পানি খাওয়ার আগে তা ভালোভাবে ফুটিয়ে জীবানুমুক্ত করে খাবেন।পেটের সমস্যার একটা বড় কারণ থাকে, হাত না ধুয়ে খাওয়া। তাই খাবার আগে ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করে নিন। আর ভ্রমনের সময় যদি হাত ধোবার অপশন না থাকে, তবে সাথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখুন।খাবার রান্নায় আদা ব্যবহার করুন। এছাড়া এই সিজনে আদা-চা খাবেন। সম্ভব হলে খাবার পরে একটু কাঁচা আদা চিবিয়ে খাবেন। কারণ, আদা আপনার হজম শক্তিকে বাড়িয়ে দিবে।বাসি বা গন্ধ ওঠা খাবার খাবেননা একদমই। এতে ডায়রিয়া বা অন্যান্য পেটের সমস্যা দেখা দিতে পারে। আর পেটের সমস্যা দেখা দিলে ওষুধ খাবার পাশাপাশি অন্যান্য খাবার খেতে হবে। সাধারণ স্যালাইন, ডাব, চিড়ার স্যালাইন খাবেন এসময়ে।

খাবার ভালোভাবে রান্না করুন-যে খাবার রান্না করবেন অবশ্যই ভালো করে ধুয়ে নেবেন। আধা সিদ্ধ সবজি অথবা ভাত খাবেন না। অনেক সময় এমন খাবার খেলে ডায়রিয়া হয়। তাই রান্না করার সময় খাবারটি ভালোভাবে সিদ্ধ করুন।

পানি ভালো করে ফুটান-আপনি যে পানি পান করবেন, তা ভালোভাবে ফুটিয়ে নিন। ফুটানো হলে নামার আগে ফিটকিরি ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে পানিতে জমে থাকা আয়রন অথবা ময়লা নিচে পড়ে যাবে।

খাবার ভালোভাবে চিবিয়ে খান-যা খাবার খাবেন, ভালোভাবে চিবিয়ে খান। আর কিছু শক্ত খাবার আছে, যা চিবিয়ে না খেলে পেট ব্যথা করতে পারে। যেমন: কাঠ বাদাম, কাজু বাদাম, খেজুর, গরম চিকেন ফ্রাই ইত্যাদি। এগুলা ভালোভাবে চিবিয়ে খান।

অ্যাপেল সি ভিনেগার রাখুন-পেটের অসুখ হলে অ্যাপেল সি ভিনেগার ব্যবহার করুন। হালকা গরম পানিতে অ্যাপেল সি ভিনেগার মিশিয়ে খান।

ভাতের চাল ভালো করে সিদ্ধ করুন-পেটের অসুখ থেকে বাঁচতে হলে অবশ্যই ভাতের চাল ভালোভাবে সিদ্ধ করুন। আপনি চাইলে ভাতের চালের মধ্যে এক চিমটি দারচিনি অথবা অল্প করে মধুও দিতে পারেন।

আর খাবার অবশ্যই সবসময় ঢেকে রাখবেন। চারপাশের নোংরা পরিবেশে সংক্রমণের ভয় বেশি। তাই সাবধান থাকার বিকল্প নেই। সূত্র: বাংলা ইনসাইডার