মজার রান্না ডেস্ক: পূজা মানেই নিরামিষ খাবার। পূজার ভোগেও এই খাবারগুলোই দেওয়া হয়। সনাতন ধর্মালম্বীদের ঘরে ঘরে এইদিন রান্না হয় নিরামিষ খিচুড়ি, লাবড়া, বেগুনভাজা, আলু পোস্ত, চাটনি, পায়েস, লুচি, নানারকম ভাজা। সঙ্গে থাকে তাজা ফল। আজ রইল পূজার ভোগের খিচুড়ি, আলু পোস্ত ও চাটনির রেসিপি।

নিরামিষ খিচুড়ি: ৬ জনের জন্য। সময়: ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট

উপাদান: মুগ ডাল ২০০ গ্রাম,গোবিন্দভোগ চাল ২০০ গ্রাম,আলু ২০০ গ্রাম,ফুলকপি ২০০ গ্রাম,টমেটো ১০০ গ্রাম,মটরশুঁটি ৮০ গ্রাম,জিরা ২ গ্রাম,এলাচ ৩ টি,দারচিনি ১ টি,লবঙ্গ ৩ টি, শুকনো মরিচ ৩ টি,তেজপাতা ৪ টি,আদা বাটা ৪০ গ্রাম,নারকেল কোরা ৪০ গ্রাম,হলুদ গুড়া ৫ গ্রাম,জিরা গুড়া ৫ গ্রাম,লবণ ২৫ গ্রাম,চিনি ৫০ গ্রাম,কাঁচা মরিচ ৫ টি,ঘি ১০ গ্রাম,গরম মশলা গুড়া ১/২ চা চামচ,সয়াবিন/ভেজিটেবল/রাইস ব্র্যান/সানফ্লাওয়ার তেল ২০ গ্রাম,সরিষার তেল ১৫ গ্রাম,গরম পানি ১.৮ লিটার

প্রস্তুতি: চাল ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরাতে দিতে হবে।আলু ও ফুলকপি আনুমানিক ৫ সে. মি. আকারের ছোট টুকরো করে কেটে নিতে হবে। এবং টমেটো চার টুকরো করে নিতে হবে। মটরশুঁটি দানা ব্ল্যাঞ্চ করে নিতে হবে অর্থাৎ ফুটন্ত গরম পানিতে দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে নামিয়ে ঠাণ্ডা পানিতে ছাড়তে হবে।

পদ্ধতি: চুলায় বড় কড়াই দিয়ে মাঝারি আঁচে গরম করে তাতে শুকনো মুগ ডাল ভেঁজে (টেলে) নিতে হবে। টানা ছয় মিনিট নেড়েচেড়ে ভাঁজুন বা বাদামী হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। নাড়া বন্ধ করে দিলে ডাল পুড়ে যেতে পারে।ভাঁজা হয়ে গেলে ডাল ধুয়ে পানি ঝরাতে দিন।এবার কড়াইতে ৫ গ্রামের মত সাদা তেল দিয়ে গরম হলে তাতে চাল দিয়ে ভাঁজতে থাকুন। চার থেকে পাঁচ মিনিট নেড়েচেড়ে ভেঁজে চাল একটি পাত্রে ঢেলে রাখুন।একই গ্রামে আরও ১৫ গ্রাম তেল দিয়ে গরম করে আলু ভেঁজে নিন। বাদামি হলে নামিয়ে একই তেলে ফুলকপি দিয়ে ভেঁজে তুলে রাখুন।একটি ছোট বাটিতে আদা বাটা, হলুদগুড়া আর জিরা গুড়া ৫০ গ্রাম পানি দিয়ে মিশিয়ে নিন। পানি ফুটাতে দিন।একটি পাত্রে সরিষার তেল দিয়ে মাঝারি আঁচে গরম করতে দিন। তেল গরম হলে তাতে শুকনা মরিচ, তেজপাতা, এলাচি, দারচিনি ও জিরা দিন।এবার কোরানো নারকেল দিয়ে প্রায় ৩ মিনিট মত ভাঁজুন।এর মধ্যে এবার মশলার মিশ্রণ দিয়ে মাঝারি আঁচে ভাঁজুন। বেশি শুকিয়ে গেলে অল্প গরম পানি দিন।তেল ফুটে উঠলে এতে টমেটো দিয়ে ঢেকে দিন ও মিনিট দুই অপেক্ষা করুনএরপর ঢাকনা তুলে এতে আগে থেকে ভেঁজে রাখা চাল, ডাল ও ২ টি কাঁচা মরিচ দিয়ে দুই মিনিটের মত নাড়তে থাকুন।এবার এতে ফুটানো গরম পানি ও লবণ দিয়ে ঢেকে পাঁচ মিনিট জ্বাল দিন।পানি ফুটতে শুরু করলে এতে ভাঁজা আলু ও ফুলকপি দিয়ে আরও ১৫ মিনিট মত ঢাকা দিয়ে রান্না করুন। মাঝেমধ্যেই ঢাকনা তুলে নাড়তে ভুলবেন না।১৫ মিনিট পরে এতে চিনি, মটরশুঁটি ও ৩ টি কাঁচা মরিচ দিয়ে ভালো করে নেড়ে আরও তিন থেকে চার মিনিট রান্না করুন।নামানর আগে ঘি ও গরম মশলা দিয়ে চুলার জ্বাল বন্ধ করে পাত্রে ঢাকা দিন। মিনিট দুই রেখে গরম গরম পরিবেশন করুন মজাদার ভোগের নিরামিষ খিচুড়ি।

আলু পোস্ত: ৫ জনের পরিমাণ। সময়: ২০ মিনিট।

পরিমাণ: সরিষার তেল ৬০ গ্রাম,কালো জিরা ১/৪ চা চামচ,শুকনো মরিচ ২ টি,আদা ২৫ গ্রাম,আলু ৫০০ গ্রাম,পোস্ত ৫০ গ্রাম,কাঁচা মরিচ ৪ টি,লবণ ১২ গ্রাম,চিনি ৮ গ্রাম

পদ্ধতি: পোস্ত দানা ঘণ্টা দুই ভিজিয়ে রাখুন। পানি ঝরিয়ে কাঁচা মরিচের সঙ্গে বেটে নিন। গ্রিন্ডারে দিলে সঙ্গে ৭৫ গ্রাম পানি মিশিয়ে নেবেন।১ সে মি কিউব করে আলু কেটে নিন।কড়াইতে সরিষার তেল দিয়ে গরম হতে দিন। গরম হলে এতে শুকনো মরিচ ও কালো জিরা দিন। এবার এতে আলু দিয়ে ৫ মিনিট মত ভাঁজুন। ঘন ঘন নাড়তে থাকুন যেন পুড়ে না যায়।এবার এতে আদা বাটা, পোস্ত বাটা, লবণ ও চিনি দিন। অল্প আঁচে নেড়ে চেড়ে তিন থেকে চার মিনিট রান্না করুন।অল্প আঁচে ঢাকা দিয়ে রান্না করতে থাকুন যতক্ষণ না আলু নরম হয়। শুকিয়ে গেলে সামান্য গরম পানি মিশিয়ে কষান।এবার দুটি কাঁচা মরিচ ও ১ চা চামচ সরিষার তেল দিয়ে রান্না শেষ করুন।

টমেটো চাটনি: ১৫ জনের পরিমাণ। সময়: ৩০ মিনিট

পরিমাণ: টমেটো ৫০০ গ্রাম,খোসা ছাড়ানো খেজুর ৪০ গ্রাম,আমসত্ত্ব ৮০ গ্রাম,কিশমিশ ৪০ গ্রাম,কাজু বাদাম ২৫ গ্রাম,চিনি ৪০০ গ্রাম,লবণ ৬ গ্রাম,হলুদ গুড়া ২ গ্রাম,সরিষার তেল ২০ গ্রাম,শুকনো মরিচ ১ টি,পাঁচফোড়ন ১/২ চা চামচ,সাইট্রিক এসিড ১/২ চা চামচ

পদ্ধতি: টমেটো ও আমসত্ত্ব ৩ সে মি আকারের ছোট টুকরো করে নিন। খেজুর লম্বা করে কেটে নিন।চুলায় পাত্র গরম করে তাতে সরিষার তেল দিন। তেল গরম হলে এতে শুকনো মরিচ ও পাঁচ ফোড়ন দিন।এবার এতে টমেটো, লবণ আর হলুদ দিয়ে ৫ মিনিট মত রান্না করুন।এবার এতে সাইট্রিক এসিড দিয়ে ঢাকনা দিয়ে আরও ২ মিনিট রান্না করুন।এবার কাজু বাদাম ও চিনি দিন। লালচে রঙ ধরতে শুরু করলে এতে কিশমিশ, খেজুর ও আমসত্ত্ব দিয়ে দুই মিনিট মত ফুটিয়ে নামিয়ে ফেলুন।