মজার রান্ন ডেস্ক: স্বাদ ও মানের কথা চিন্তা করে আপনার নিজের হাতেই কেন একটু কষ্ট করে বানান না মিষ্টি? যা আপনার বাসার সবার পছন্দ। বাসায় বানানো খাবারের স্বাস্থ্যগত মান নিয়ে কোন সন্দেহ থাকে না। তাই নিজের রুচিমতো ঘরেই বানিয়ে ফেলুন মুখরোচক আম দই, রসগোল্লা ও সন্দেশ। এখন আমের সময় না তবুও এই রেসিপি টি দিচ্ছি বলে রাগ করবেন না। যাদের ফ্রিজে পাকা আম ডিপ করে সংরক্ষণ করা আছে তারা চাইলে এই মুখোরচক খাবারটি এখনি বানায়ে খেতে পারবেন।

আম দই

উপকরণ: তরল দুধ ৪ কাপ,পাকা মিষ্টি আম ১ টি (বড়),টক দই ৫০০ গ্রাম,কনডেন্স মিল্ক ১/২ টি কৌটা,চিনি পরিমাণমতো,(সাজানোর জন্য)জাফরান পরিমাণমতো,পেস্তাবাদাম ১ টেবিলচামচ,আম চারকোণা করে কাটা- পরিমাণমতো

পদ্ধতি: প্রথমে টক দইয়ের পানি ঝরিয়ে নিতে হবে ভালোভাবে। একটি পাত্রে দুধ জ্বাল দিতে হবে। দুধ ফুটে উঠলে চুলার জ্বাল কমিয়ে ঘন ঘন নাড়তে হবে, যাতে দুধ পাত্রের নিচে পুড়ে না যায়। দুধ ঘন হয়ে পরিমাণে ১ কাপ হলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। দুধ ঠান্ডা করে নিন।টক দই, চিনি, দুধ, কনডেনস মিল্ক ও আম ব্লেন্ডারে দিয়ে ব্লেন্ড করুন। মিশ্রণটি একটি পাত্রে ঢালুন। পাত্রটি অবশ্যই মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ব্যবহারের উপযুক্ত হতে হবে। এবার মিশ্রণটি ওভেনে দিয়ে ৩০-৪০ মিনিট বেক করুন। ওভেন থেকে বের করে একটি চামচ বা হাত দিয়েই দেখে নিন মিশ্রণ ভালোভাবে এঁটে গেছে কিনা। ভেতরে তরল ভাব থাকলে আরও কিছুক্ষণ ওভেনে দিয়ে বেক করতে হবে। এরপর বাইরে রেখে ঠান্ডা করুন। ঠান্ডা হলে ফ্রিজে রেখে দিন। ১ ঘন্টা পর পরিবেশন করুন।পেস্তাবাদাম, জাফরান ও আম দিয়ে পরিবেশন করুন।

রসগোল্লা

উপকরণ: দুধ ১ ১/২ লিটার,লেবুর রস বা ভিনেগার ৩ টেবিলচামচ,চিনি ১ কাপ,পানি ৫ কাপ,ময়দা ১ চা চামচ

পদ্ধতি: একটি পাত্রে দুধ জ্বাল দিন। দুধ ঘন হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে এতে লেবুর রস বা ভিনেগার দিন। দুধ ঠান্ডা হতে দিন। এরপর একটি বড় পাত্রের ওপর পাতলা কাপড় বিছিয়ে দুধ ঢেলে দিতে হবে। ছানা কাপড়ের ওপর থাকবে। এবার ছানা একটি বাটিতে ঢেলে সামান্য পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এতে লেবুর টক ভাব থাকবে না।একটি ছাকনিতে ১ ঘন্টা রেখে দিয়ে ছানার পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। এরপর ছানা ভালোভাবে মেখে নিতে হবে। ছানার সাথে ময়দা মিশিয়ে আরও কিছুক্ষণ মেখে নিন। এবার ছানা দিয়ে ছোট ছোট বল তৈরি করুন। তবে খেয়াল রাখতে হবে, ছানার বল যেন মসৃণ হয়।এবার একটি পাত্রে চিনি ও পানি দিয়ে অল্প আঁচে জ্বাল দিতে হবে। মিশ্রণটি ঘন হলে চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে। চিনির সিরায় ১/২ টেবিলচামচ দুধ মিশিয়ে নিন। এবার ছানার বলগুলো ধীরে ধীরে চিনির সিরায় দিয়ে পাত্রটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। হালকা আঁচে ২০ মিনিট রাখুন। চুলা থেকে নামিয়ে অন্য একটি পাত্রে ঢেলে রাখুন। ঠান্ডা হলে ফ্রিজে রাখুন।

গুড়ের সন্দেশ

উপকরণ: ছানা ১ ১/২ কাপ,গুড় ১/৪ কাপ,চিনি ১/৪ কাপ,দুধ ১/৪ কাপ,ঘি ১ টেবিলচামচ

পদ্ধতি: ছানার পানি ঝরিয়ে খুব ভালোভাবে পেষ্ট করে নিতে হবে। একটি পাত্রে দুধ, চিনি ও গুড় জ্বাল দিতে হবে। সবগুলো উপাদান মিশে গেলে এতে ছানা দিতে হবে। অল্প আঁচে রেখে বার বার নাড়তে হবে মিশ্রণটি।মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলেও অল্প আঁচে ভাজতে হবে অনেকক্ষণ। একসময় আঠাঁলো ভাব হবে। তখন চুলা থেকে নামিয়ে মিশ্রণটি ঠান্ডা করুন। এবার মিশ্রণটি পছন্দমতো ছাঁচে দিয়ে বানিয়ে নিন সন্দেশ।গুড়ের সন্দেশ পরিবেশনের আগে অন্তত একরাত ফ্রিজে রেখে দিন। এতে সন্দেশের আকার ভালো হবে। পেস্তাবাদাম দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।