মজার রান্না ডেস্ক: এখন আপনাদের জন্য দেওয়া হচ্ছে একটি অনেক মজার রেসিপি। এটি খেতে অনেক সুস্বাদু এবং রান্নাও ঝামেলা বিহীন । দেখে নিন রেসিপিটি।

উপকরণ :

১. ইলিশ মাছ ৮ টুকরা (গাদা পেটিসহ),

২. পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ,

৩. হলুদের গুঁড়া ১ চা-চামচ,

৪. মরিচের গুঁড়া ১ চা-চামচ,

৫. সরিষাবাটা আধা কাপ,

৬. সরিষার তেল আধা কাপ,

৭. লবণ স্বাদমতো,

৮. চিনি আধা চা-চামচ,

৯. কাঁচা মরিচ ফালি ৭-৮টি,

১০. পানি আধা কাপ।

খিচুড়ির উপকরণ:

১. পোলাওয়ের চাল ২ কাপ,

২. মুগডাল ২ কাপ,

৩. সরিষা ১ চা-চামচ,

 

৪. আস্ত জিরা ১ চা-চামচ,

৫. কাঁচা মরিচ ফালি ১০-১২টি,

৬. রসুন গোল করে কাটা ২ টেবিল চামচ,

৭. আদা কুচি ২ টেবিল চামচ,

৮. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ,

৯. গরম পানি ৬ কাপ,

১০. এলাচি, দারুচিনি ও তেজপাতা ২টি করে, লবণ প্রয়োজনমতো,

১১. তেল পৌনে এক কাপ।

প্রণালি :
> ইলিশ মাছ গাদা, পেটিসহ একটু মোটা টুকরা করে কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।

মাছের বাকি সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মেখে একটি টিফিন বাটিতে মাছগুলো রেখে ঢাকনা লাগিয়ে দিন।

এবার বাটিটা একটি জালি ব্যাগের মধ্যে রেখে ভালোভাবে বেঁধে দিন, যেন ঢাকনাটা খুলে না যায়।

এবার বাটিটা ফুটানো পানির মধ্যে ডুবিয়ে ঢেকে রাখুন।

> এবার ডাল সামান্য ভেজে ঠান্ডা করে নিন।

চাল ও ডাল ধুয়ে একসঙ্গে ১০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে পানি ঝরিয়ে নিন।

পাত্রে তেল দিয়ে জিরা ও সরিষার ফোড়ন দিন।

এবার ডাল-চাল বাদে বাকি সব উপকরণ দিয়ে নাড়ুন।

পেঁয়াজ স্বচ্ছ হয়ে এলে চাল-ডালের মিশ্রণ দিয়ে ৪-৫ মিনিট নাড়ুন।

এবার চালের দেড় গুণ গরম পানি দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে লবণ চেখে ঢেকে দিন।

> চাল ও পানি সমান সমান হলে ভালোভাবে নাড়াচাড়া করে টিফিন বাটিটা চালের মধ্যে বসিয়ে দিন।

ওপরে ডাল-চাল দিয়ে ঢেকে দিন।

এখন পাতিলের মুখে ভেজা কাপড় দিয়ে পেঁচিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন।

২০ মিনিট মাঝারি জ্বালে তাওয়ার ওপর দমে বসিয়ে রাখুন।

এবার জ্বাল বন্ধ করে আরও ৫-৭ মিনিট রাখুন।

এবার নামিয়ে পরিবেশন করুন।