মজার রান্না ডেস্ক: ঢাকা বিভাগে সুপরিচিত আর দেশের অন্যান্য জেলায় কিছুটা অপরিচিত পিঠাটির নাম মুখশৈলী। স্হানীয় লোকমুখে মুখশোলা বা মুখশায়লা বলা হয়ে থাকে। খেতে সুস্বাদু এই পিঠার রেসিপি দেওয়া হচ্ছে এখন। জেনে নিন মুখশোলা পিঠার রেসিপিটি।

উপকরণ:
ক্ষীরশার জন্য-

দেড় লিটার তরল গরুর দুধ

চিনি (এক কাপ)

পিঠার জন্য-

আধা কেজি চালের গুড়ি

পাকা কলা (বড় হলে অর্ধেক /ছোট হলে একটি)

খেজুরের গুড় ২০০ গ্রাম (যাদের খেজুর গুড় পাওয়ার সুযোগ নেই তারা নিশ্চিন্তে ডার্ক ব্রাউন সুগার দিতে পারেন)

ডিম (অর্ধেক)

ঘি (অল্প পরিমানে)

লবন(পরিমান মতো)

তেল (ভাজার জন্য)

প্রস্তুত প্রণালী:
প্রথমে দেড় লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে দেড় কাপ করে নিতে হবে।জ্বালের মাঝামাঝি অবস্হায় চিনি দিতে হবে।হয়ে গেল ক্ষীরশা।কেউ চাইলে এতে দেড়মুঠো চালের গুড়ি শুকনো কড়াইতে অল্প আঁচে হালকা ভাজা (যখন ব্রাউন হয়ে আসবে) দিয়ে মিশিয়ে নিতে পারেন।আর হ্যা, ক্ষীরশা তৈরির পুরোটা সময় ঘন ঘন নাড়তে হবে নয়তো প্যানের নীচে লেগে যাবে।সবচেয়ে ভাল হয় নন স্টি ক সস প্যানে করলে তাহলে পুড়ে যাওয়ার ভয়টা কিছুটা কম থাকে।

এবার পিঠার জন্য চালের গুড়ি পরিমানমতো পানিতে প্রয়োজনীয় পরিমান লবন দিয়ে সিদ্ধ করতে হবে।গরম থাকতেই তাতে গুড়/ব্রাউন সুগার দিয়ে খামিরটি ভালোভাবে মিশাতে হবে।তারপর কলা মিশাতে হবে।তারপর খামিরটি ঠান্ডা হয়ে আসলে তাতে ডিম মিশাতে হবে।তারপর সবশেষে স্টিকি স্টিকি ভাবটা এড়াতে ঘি দিতে হবে।পিঠা সুন্দর করতে চাইলে ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে।খামিরটি মিশাতে ২৫ থেকে ৩০মিনিট লাগবে।এবার ছোট ছোট ভাগ করে রুটির মতো বেলে ভিতরে ক্ষীরশা দিয়ে কুকি কাটার দিয়ে হাফ ওভাল শেপে কেটে নিতে হবে।

এবার ডুবোতেলে টপাটপ ভেজে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে।ঠান্ডা পিঠা ওভেনে গরম করেও পরিবেশন করা যায়।