সব জায়গায় লেগে যাচ্ছে প্রিপেইড মিটার তাই এখনি সময় গ্যাসের অপচয় কমিয়ে ফেলার - Mojar Ranna সব জায়গায় লেগে যাচ্ছে প্রিপেইড মিটার তাই এখনি সময় গ্যাসের অপচয় কমিয়ে ফেলার - Mojar Ranna

সব জায়গায় লেগে যাচ্ছে প্রিপেইড মিটার তাই এখনি সময় গ্যাসের অপচয় কমিয়ে ফেলার

;
  • প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০২০, ১০:৩২ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ বছর আগে

মজার রান্না ডেস্ক: দূর্ভাগ্যজনকভাবে গ্যাসের অফুরন্ত কোন উত্স আমাদের কাছে নেই। আর যাও বা আছে সেটাও অপ্রতুল। তাই আমাদের উচিত খুব অল্প অল্প করে এই অমূল্য সম্পদটির ব্যবহারে মনোযোগী হওয়া। কিন্তু বাস্তবে সেটা প্রায় হচ্ছেনা বলেই চলে। বরঞ্চ, যেখানে যতটা পারা যায় তার চাইতেও বেশি পরিমাণে গ্যাসের অপচয় করে চলেছে মানুষ। কখনো সচেতনভাবে, কখনো অসচেতনভাবে। অসচেতনভাবে এমন গ্যাসের অপচয় আপনার দ্বারাও হচ্ছেনা তো? চলুন জেনে নিই কী করে গ্যাসের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে অপচয় অনেকটাই কমিয়ে আনতে পারবেন আপনি।

রান্না করতে গেলে চুলা তো আপনাকে জ্বালাতেই হবে। ফলে খরচ হবে গ্যাস। গ্যাসের এই খরচটাকে আপনি আটকাতে না পারলেও অপচয়টা অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব আপনার পক্ষে। আর সেজন্যে রান্না শুরুর পূর্বে মশলা, কাঁচা সব্জি, চাল, থালাবাটি- যা কিছু লাগবে সব হাতের কাছে নিয়ে আসুন। এতে করে সময় কম লাগবে। রান্না হবে দ্রুত আর গ্যাসের খরচ হবে কম।

রেফ্রিজারেটরে কোন জমাট মাংস মাছ বা খাবার থাকলে আর সেটাকে রান্নায় ব্যবহারের ইচ্ছা আপনার থেকে থাকলে রান্নার আগেই সেগুলোকে বাইরে বের করে রাখুন। বরফ ভাঙবে এতে। ঠান্ডা জিনিসটি গরম হবে ধিরে ধিরে। ফলে সেটিকে গরম করতে কম গ্যাসের দরকার পড়বে।

চুলায় হাড়ি-পাতিল বা কড়াই দেওয়ার পর একটু জোরে জ্বাল দিন বটে। তবে সেটা পাত্রটি গরম হয়ে যাওয়া পর্যন্তই। এরপর জ্বাল কমিয়ে দিন। সেটাকে মৃদু বা মাঝারি মাত্রায় নিয়ে যান। কারণ প্রথমদিকে পাত্র গরম করতেই জ্বাল বাড়িয়ে দিতে হয়। এরপর সেটা একবার গরম হয়ে গেলে আর অতটা তাপের দরকার পড়েনা। এতে করে গ্যাসের অপচয় হবেনা আর রান্নাটাও হবে ভালো।

ঘরের রেগুলেটর, পাইপ, বার্নার- সব পরীক্ষা করুন প্রতিদিন। কারণ যদি এর কোনটায় ফুটো হয়ে যায় তাহলে সেটা গ্যাসের অপচয় যেমন বাড়াবে তেমনি বাড়াবে আপনার বিপদের আশংকাও।

যদি আপনার বারবার একদিনে গরম পানির দরকার পড়ে তাহলে বারবার গ্যাস জ্বালানোর বদলে থার্মোস বোতল কিনে ফেলুন বা এমন কিছু একটা করুন যাতে একবারেই অনেক পানি গরম করে নিয়ে তারপর সেটা বারবার ব্যবহার করতে পারেন আপনি।

অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ অতিরিক্ত পানি থেকে তৈরি হয় অতিরিক্ত বাষ্প। আর এই বাষ্প তৈরিতে খরচ হয়ে যায় অনেকটা পরিমাণ গ্যাস।

দরকার মতন বেশ কয়েকটি উপায়ে বিভিন্ন খাবার রান্না করতে পারেন আপনি। এই যেমন- মাংসের জন্যে মাইক্রোওয়েভ আর সাধারণ তরকারীর জন্যে চুলা। এতে করে গ্যাস কম খরচ হবে। তাছাড়া গ্যাসের সাশ্রয়ী খরচের জন্যে প্রেশার কুকার হতে পারে সবচাইতে সাশ্রয়ী একটি মাধ্যম।

সূত্র: প্রিয়.কম

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : আয়ান আইটি