ঘরে থাকা ডিম দিয়েই ইফতারের অসাধারণ ৬টি রেসিপি | Mojar Ranna ঘরে থাকা ডিম দিয়েই ইফতারের অসাধারণ ৬টি রেসিপি | Mojar Ranna

ঘরে থাকা ডিম দিয়েই ইফতারের অসাধারণ ৬টি রেসিপি

;
  • প্রকাশিত: ৩ মে ২০২১, ১১:১১ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১ সপ্তাহ আগে

মজার রান্না ডেস্ক: আপনাদের জন্য এখন দেওয়া হচ্ছে ডিম দিয়ে তৈরি একটি রেসিপিগুচ্ছ। এখানে দেওয়া হয়েছে ডিমের নানা ধরনের রেসিপি। দেখে নিন ডিমের ৬টি রেসিপি।

চিজি এগ পিৎজা

উপকরণ :পিৎজা খামিরের জন্য :ময়দা ২ কাপ,১. ড্রাই ইস্ট ১ চা-চামচ,২. চিনি আধা চা-চামচ,৩. আধা চা-চামচ,৪. কুসুম গরম পানি পৌনে এক কাপ,৫. অলিভ অয়েল ২ চা-চামচ।

পিৎজার ফিলিঙের জন্য :১. ডিম ৩টি,২. মোজারেলা চিজ ১ কাপ (কুচি),৩. টমেটো পেস্ট আধা কাপ,৪. পেঁয়াজ ২টি (মাঝারি আকারের),৫. টমেটো ২টি (মাঝারি আকারের),৬. ক্যাপসিকাম ১টি (বড়),৭. চিকেন সসেজ ৬টি,৮. ড্রাই অরিগেনো ১/৫ চা-চামচ।

প্রণালি :> প্রথমে কুসুম গরম পানিতে ইস্ট আর চিনি মিশিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিতে হবে। সসেজ, টমেটো আর ক্যাপসিকামগুলো পাতলা টুকরা করে নিতে হবে। পেঁয়াজ গোল করে কেটে রিঙের মতো পরতে পরতে খুলে রাখতে হবে। একটা বড় পাত্রে ময়দা আর লবণ মিশিয়ে মাঝে গর্ত করে তাতে ইস্টের মিশ্রণ ঢেলে দিয়ে ময়দার সঙ্গে ভালোমতো মিশিয়ে খামির তৈরি করে অলিভ ওয়েল মাখিয়ে একটা ঢাকনা অথবা প্লাস্টিক ফয়েল দিয়ে ঢেকে রাখুন। আধা ঘণ্টা চুলার পাশে বা কোনো গরম স্থানে রেখে দিতে হবে। প্যানে ১ চা-চামচ তেল গরম করে লবণ দিয়ে ফেটানো ডিম দিয়ে হালকা ঝুরি করে ভেজে নামিয়ে নিতে হবে। ডিম ভাজাটা অবশ্যই খুব হালকা হতে হবে। কারণ এরপর আবারও ওভেনে ভাজা হবে। আধা ঘণ্টা পর খামিটাকে দুই ভাগ করে আবারও খানিকক্ষণ ভালো করে মেখে দুইটা পুরু রুটির আকারে বেলে নিন।হালকা তেল মাখানো বেকিং ট্রেতে রুটিটা বসিয়ে কাঁটাচামচ দিয়ে একটু ফুঁটা ফুঁটা করে দিতে হবে, যাতে বেক করার সময় রুটি ফুলে না ওঠে।তারপর প্রতিটি রুটির ওপরে স্তরে স্তরে (লেয়ারে) প্রথমে পিৎজা সস, তার ওপরে সসেজ, তার ওপরে চিজ, তার ওপরে ডিম আর অরিগেনো, তার ওপরে চিজ দিয়ে একদম ওপরে টমেটো, পেঁয়াজ, ক্যাপসিকাম দিয়ে সাজিয়ে ১৮০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে প্রি-হিটেড ওভেনে ১৮-২০ মিনিট বেক করুন। চিজ গলে সোনালি রং হলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে।

চিজ টমেটো অমলেট

উপকরণ :১. ডিম ৩টি,২. তরল দুধ ৩ টেবিল চামচ,৩. চেডার চিজ (অপেক্ষাকৃত শক্ত চিজ) ১/৪ কাপ,৪. গোলমরিচ গুঁড়া স্বাদমতো,৫. ড্রাই অরিগেনো ১/৫ চা-চামচ,৬. লবণ স্বাদমতো,৭. মাখন বা তেল ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি :> ডিম, দুধ, গোলমরিচ গুঁড়া ও লবণ একসঙ্গে খুব ভালো করে ফেটে নিতে হবে। ভালো হয় যদি এগ বিটার বা মিক্সচার ব্যবহার করা যায়। প্যানে মাখন বা তেল গরম করে ফেটানো ডিমের মিশ্রণ দিয়ে চুলার আঁচ কমিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মিনিট পাঁচেক পর ঢাকনা সরিয়ে কুচি করে কাটা চিজ ছড়িয়ে দিয়ে আবারও ঢেকে দিতে হবে। মিনিট দু-এক পরে ঢাকনা সরিয়ে ডিমটাকে পছন্দানুসারে দুই বা তিন ভাঁজ করে প্লেটে নামিয়ে পরিবেশন করতে হবে। অরিগেনো পছন্দ না করলে বা বাসায় না থাকলে অল্প করে ধনেপাতা কুচি দেওয়া যেতে পারে। বীজ ফেলে ছোট কিউব করে কাটা টমেটো বা পেঁয়াজের ব্যবহার অমলেটে ভিন্ন মাত্রা যোগ করবে। দিতে হবে ডিম ফেটানোর সময়ই। বাসায় ওভেন থাকলে তাতেও এই অমলেট করা যায়।

ডিমের সালাদ

উপকরণ :১. সেদ্ধ ডিম ৬টি, ২. মেয়োনেজ সিকি কাপ, ৩. সরিষা বাটা ১ চা-চামচ, ৪. গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচের তিন ভাগের এক ভাগ, ৫. লেবুর রস ১ চা-চামচের তিন ভাগের এক ভাগ, ৬. পেঁয়াজ কুচি আধা চা-চামচ, ৭. ধনিয়াপাতা কুচি আধা চা-চামচ, ৮. কাঁচা মরিচ কুচি স্বাদমতো, ৯. লবণ স্বাদমতো,১০. চিনি আধা চা-চামচ।

প্রণালি :> সেদ্ধ ডিম কিউব করে কেটে নিতে হবে। একটা পাত্রে ডিম বাদে অন্য সব উপকরণ ভালোভাবে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিয়ে তাতে কুচানো ডিম দিয়ে হালকা হাতে মিশিয়ে পরিবেশন করতে হবে।চাইলে এতে বরফ পানিতে ডুবিয়ে উঠিয়ে নেওয়া লেটুসপাতা কুচি বা কিউব করে কাটা সেদ্ধ আলুও অল্প করে ব্যবহার করা যেতে পারে।

ডিমের স্যান্ডউইচ

উপকরণ :১. পাউরুটি ৬ টুকরা (মাল্টি গ্রেইন বা ব্রাউন ব্রেডও নিতে পারেন),২. সেদ্ধ ডিম ৩টি,৩. মেয়োনেজ ২ টেবিল চামচ,৪. সরিষা বাটা (মাস্টারড পেস্ট) আধা চা-চামচ,৫. গোলমরিচ গুঁড়া স্বাদমতো,৬. লবণ স্বাদমতো,৭. এ ছাড়া চিনি ১/৩ চা-চামচ, ৮. ধনিয়াপাতা কুচি আধা চা-চামচ,৯. টমেটো ১টি,১০. লেটুসপাতা দিতেও পারেন না-ও পারেন।

প্রণালি :> সেদ্ধ ডিম একদম ছোট টুকরা করে কেটে নিতে হবে। তারপর একটা পাত্রে মেয়োনেজ, মাস্টারড পেস্ট, গোলমরিচ গুঁড়া, স্বাদ অনুযায়ী লবণ ও চিনি নিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এতে ডিমের টুকরা বা কুচি মিশিয়ে তা একটা পাউরুটির ওপরে চামচ বা ছুরির সাহায্যে সমানভাবে লাগিয়ে নিয়ে ওপরে আর একটা পাউরুটি দিয়ে হালকা করে চেপে বসিয়ে দিন। এবার ধারালো ছুরি দিয়ে পাউরুটির চারপাশের শক্ত অংশ কেটে বাদ দিয়ে তারপর আড়াআড়িভাবে ত্রিভুজাকারে বা লম্বালম্বিভাবে আয়তাকারে কেটে পরিবেশন করতে হবে। সালাদপ্রেমী হলে পাউরুটিতে ডিমের প্রলেপ দেওয়ার আগে লেটুসপাতা, পাতলা করে কাটা টমেটো দিয়ে তার ওপরে ডিমের প্রলেপ দিয়েও স্যান্ডউইচ তৈরি করা যেতে পারে।ভিন্নতা আনতে একটু ধনেপাতা কুচিও দেওয়া যেতে পারে।খুব বেশি স্বাস্থ্যসচেতন যাঁরা, তাঁরা মেয়োনেজ বাদ দিয়েও স্যান্ডউইচ তৈরি করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে পাউরুটির ওপরে মারজারিন লাগিয়ে তার ওপরে লেটুসপাতা, পাতলা করে কাটা টমেটো, পাতলা গোল করে কাটা সেদ্ধ ডিম, অল্প গোলমরিচ গুঁড়া আর লবণ ছড়িয়ে ওপরে আর একটা পাউরুটি চেপে বসিয়ে নিলেই আর এক রকমের এ স্যান্ডউইচ তৈরি হয়ে যাবে। হাতে সময় থাকলে শুকনা তাওয়ায় পাউরুটি হালকা সেঁকে নিয়ে স্যান্ডউইচ বানালে তার স্বাদও ভিন্ন হবে।

মেক্সিকান এগ স্ক্রাম্বল

উপকরণ :১. ডিম ৪টি, টমেটো ১টি,২. ক্যাপসিকাম ১টি (ছোট),৩. পেঁয়াজ ১টা (মাঝারি),৪. কাঁচামরিচ ২টি (স্বাদমতো),৫. লবণ স্বাদমতো,৬. তেল ২ টেবিল চামচ।

প্রণালি :> স্বাদমতো লবণ দিয়ে ডিমগুলো ফেটিয়ে নিতে হবে। টমেটো, ক্যাপসিকাম বীজ ফেলে ছোট কিউব আকারে কেটে নিতে হবে। মাঝারি আকারের একটা পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচ একইভাবে কেটে নিতে হবে। প্যানে ১ চা-চামচ তেল গরম করে তাতে টমেটো, ক্যাপসিকাম, পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচ দিয়ে মিনিট দু-এক ভেজে নামিয়ে নিতে হবে। প্যানে বাকি তেল গরম করে ফেটিয়ে রাখা ডিমে ছড়িয়ে দিতে হবে।মিনিট খানিক পর খুন্তি বা চামচ দিয়ে ডিমটা ভেঙে দিতে হবে।এ সময় ভেজে রাখা টমেটো, ক্যাপসিকাম, পেঁয়াজের মিশ্রণটাও দিয়ে দিতে হবে এবং হালকা হাতে ঝুরি করতে হবে। খুব বেশি ভাজা ভাজা করা যাবে না। তাতে শক্ত হয়ে যাবে এবং স্বাদও নষ্ট হয়ে যাবে। ডিমের কাঁচা ভাব চলে গেলেই প্লেটে নামিয়ে পরিবেশন করতে হবে। চাইলে অল্প করে ধনেপাতাও দেওয়া যেতে পারে। হাতের কাছে পেঁয়াজকলি থাকলে তা-ও কুচি করে ব্যবহার করা যেতে পারে।

সসেজ অ্যান্ড ব্রেড পুডিং

উপকরণ :১. ডিম ৪টি, ২. পাউরুটি ৮ টুকরা, ৩. সসেজ ৬টি, ৪. মাখন ২ টেবিল চামচ, ৫. পেঁয়াজ ১টি (মাঝারি আকারের কুচি করে কাটা), ৬. তরল দুধ ১ কাপ, ৭. চেডার চিজ কুচি আধা কাপ, ৮. গোলমরিচ গুঁড়া স্বাদমতো, ৯. লবণ স্বাদমতো,১০. ধনিয়াপাতা কুচি আধা চা-চামচ।

প্রণালি :> ডিম, দুধ, গোলমরিচ গুঁড়া আর লবণ একসঙ্গে ফেটিয়ে নিতে হবে। পাউরুটিগুলো ১ ইঞ্চি কিউব করে কেটে রাখতে হবে।সসেজগুলোও কুচি করে কেটে নিতে হবে।এরপর প্যানে সামান্য মাখন দিয়ে পেঁয়াজ হালকা ভেজে তাতে সসেজ কুচি দিয়ে ৩-৪ মিনিট ভেজে ধনেপাতা মিশিয়ে নামিয়ে নিতে হবে।একটা পাত্রে ভাজা সসেজ, পাউরুটি আর কুচানো চিজ (অল্প চিজ আলাদা করে রেখে দিতে হবে) হালকা হাতে মিশিয়ে তা অল্প মাখন মাখানো একটা ওভেনপ্রুফ বেকিং ডিশে বিছিয়ে দিতে হবে।এর ওপরে আস্তে আস্তে দুধ ও ডিমের মিশ্রণ ঢেলে দিয়ে ২৩০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে প্রি-হিটেড ওভেনে ২০-২৫ মিনিট বেক করতে হবে আর মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ১০-১২ মিনিট বেক করলেই চলবে। ওপরে সোনালি রং ধরলে নামিয়ে নিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে।ঠান্ডা হয়ে গেলে শক্ত হয়ে যাবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : আয়ান আইটি