পটলের মুখরোচক ৭ পদের রেসিপি - Mojar Ranna পটলের মুখরোচক ৭ পদের রেসিপি - Mojar Ranna

পটলের মুখরোচক ৭ পদের রেসিপি

;
  • প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ৩ বছর আগে

পটলের মুখরোচক দোপেঁয়াজা

উপকরণ:

পটল আধা কেজি

পেঁয়াজ ১ কাপ

কাঁচা মরিচ কুচি স্বাদ অনুযায়ী

লবণ স্বাদ অনুযায়ী

হলুদ ১/৪ চা চামচ

মরিচের গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ (ইচ্ছা)

তেল

প্রণালী:

পটল ছিলে দুইভাগ করে নিন। পটলের খোসা বটিতে একটু ঘষে নিয়ে অনেকে এটা করতে চান, কিন্তু তাতে মজা হবে না এই রেসিপিতে রান্না করলে।সেটা অন্য খাবার। সেটা রান্নায় অনেক তেলও দিতে হয় যা স্বাস্থ্যকর নয়।পটল ছিলে নেয়াই এই রেসিপিতে জরুরি। মাঝের বীজ রেখে দিবেন, নাহলে পটলের শেপ নষ্ট হয়ে যাবে।প্যানে তেল দিন আপনার রুচি অনুযায়ী। তেল গরম হলে এতে কাঁচা মরিচের ফালি দিয়ে দিন।কাঁচা মরিচ থেকে সুন্দর ঘ্রাণ ছড়ালে দিয়ে দিন পেঁয়াজ ও সামান্য লবণ।পেঁয়াজ একটু চকচকে হলে দিয়ে দিন পটল, হলুদ-মরিচ গুঁড়ো। এবার মাঝারি আঁচে ভাজতে থাকুন।ঢাকনা দেবেন না, এতে পটলের রঙ নষ্ট হয়ে যাবে। কেবল মাঝে মাঝে একটু নেড়ে দিয়ে ভাজলেই হবে। নাড়তে হবে যেন পেঁয়াজ পুড়ে না যায়।কিছুক্ষণ পর দেখবেন পটল সেদ্ধ হয়ে গেছে, পেঁয়াজও ভাজা ভাজা হয়ে গেছে কিন্তু পুড়ে যায়নি। এবার চাইলে একটু ধনে পাতা ছিটিয়ে দিতে পারেন।পরিবেশন করুন গরম গরম। যদিও ঠাণ্ডা হলেও ভালো লাগে। ফ্রিজে রেখেও বেশ কয়েকদিন খাওয়া যায়।

পুর ভরা ক্ষীরসা পটল

উপকরণ :

পটল ছয় টা ,

পুরের জন্যে পেস্ট এক কাপ (কাজু ,পেস্তা , খেজুর ও মাওয়া পেস্ট করে চিনি ও ঘি দিয়ে মাখিয়ে রাখতে হবে )

আরো লাগবেঃ

তরল দুধ এক কেজি ,

গুড়া দুধ আধা কাপ ,

চিনি আধা কাপ ,

মাওয়া দুই টেবিল চামচ ,

ঘি দুই টেবিল চামচ ।

প্রণালী:পটলের খোসা ফেলে দিয়ে মাঝখান থেকে অল্প করে চিড়ে দানা গুলো সাবধানে বের করে আনতে হবে ।খেয়াল রাখতে হবে যে পটল যেনো দু’ভাগ না হয়ে যায় ।এবার একটু পানিতে হাল্কা ভাপিয়ে নিতে হবে ।পানি ঝড়িয়ে সুতি কাপড় দিয়ে আলতো ভাবে পটল গুলো মুছে নিতে হবে ।এবার পটলের ভেতর পুর ভরে ঘিয়ে ভেজে তুলে রাখুন ।অন্য পাত্রে তরল ও গুড়ো দুধ , চিনি , এলাচ , দারচিনি মিশিয়ে জ্বাল দিন ঘন করুন ।অর্থাৎ প্রায় অর্ধেক হলে বুঝতে পারবেন যে ঘন হয়ে এসেছে ( এলাচ ও দারচিনি তুলে ফেলে দিন ) ।এবার ভেজে রাখা পটল গুলো ঘন দুধে দিয়ে জ্বাল কমিয়ে আরো পাঁচ / দশ মিনিট রেখে ।আরো একটু মাখো মাখো হলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে পেস্তা , কাজু কুচি ও কিসমিস ছড়িয়ে পরিবেশন করুন ।

চিংড়ি পনির নারকেল দিয়ে পটলের দোরমা

উপকরণ ও প্রণালী:

পটলের বাইরের পাতলা খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে।পটলের মাথার দিক টা কেটে ভিতর থেকে সাস বেড় করে নিতে হবে।আলু সেদ্ধ, পনির টা মিহি করে নিয়ে নারকেল সাথে আদা বাটা রসুন বাটা কাঁচা লঙ্কা বাটা পোস্ত বাটা ও সাদা সরষে বাটা দিয়ে মেখে নিতে হবে।কড়াই তে লবণ হলুদ দিয়ে মাখা চিংড়ি মাছ ভেজে ওই তেলে আলুসিদ্ধ পনির নারকোল পুর ভালো করে নাড়তে হবে।বিট নুন দিলে ভালো হয় নয়তো এমনি নুন।এরপর পটলের মধ্যে পুর ভরে পটলের মাথার কাটা অংশ টা টুথ পিক দিয়ে আড়াআড়ি ভাবে গুঁজে জোড়া লাগাতে হবে।পটল টা এবার হালকা বেসন গোলা জলে ডুবিয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিতে হবে।কড়াই তে গোটা দারচিনি ছোট এলাচ লবঙ্গ ফোড়ন দিয়ে পিঁয়াজ বাটা আদা বাটা রসুন বাটা দিয়ে কষাতে হবে।টমেটো বাটা দিয়ে পিঁয়াজের টমেটোর জল শুকালে চালমগজ বাটা দিয়ে কষাতে হবে।এর পর কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো জিরে বাটা একটা জায়গায় জলে গুলে কড়াই তে দিতে হবে।হলুদ নুন মিষ্টি ঝাল আন্দাজ মতো দিয়ে নেড়ে নারকোল কোরা দিয়ে জল দিতে হবে।জল ফুটে মাখো মাখো হয়ে গেলে ধনেপাতা ঘি গরম মসলা বাটা আর অল্প গোলাপ জল দিয়ে ভাজা পটল গুলো দিয়ে মিনিট দু তিন রেখে oven থেকে নামিয়ে ঢাকা দিয়ে কিছুক্ষণ রাখতে হবে।গরম গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।

দই পটলের রেসিপি

উপকরণ :-

সবুজ পটল ২৫০ গ্রাম,

সর্ষের তেল ৫০ গ্রাম,

ঘি ২৫ গ্রাম,

দই ১০০ গ্রাম ,

১ চামচ পরিমান আদাবাটা , জিরে বাটা সামান্য,

১ চামচ হিং,

২৩ টি কাঁচা লঙ্কা,

৩ টি এলাচ,

৩ টে তেজপাতা,

পরিমান মতন নুন ।

প্রণালী :-পটল গুলির খোসা ছাড়িয়ে সেগুলি দুখণ্ড না করে ছুরি দিয়ে সামান্য চিরে দিন ।তারপর কড়াইতে তেল দিয়ে পটল গুলি ভালো করে ভেজে নিন .তারপর পটল গুলি নামিয়ে কড়াইতে ঘি দিয়ে হিং ও আদাবাটা নেড়ে নিন ।এবার ভাজা পটল গুলি কড়াতে ছেড়ে তাতে দই এলাচ গুড়ো, লঙ্কা কুচি দিয়ে ভালো করে সাঁতলে নিয়ে তাতে জল দিন।তারপর মিনিট পাঁচেক তা ঢেকে রাখুন ।ফুটে উঠলে নামিয়ে ফেলুন |

কিমা পটলের রেসিপি

উপকরণ:

পটলঃ ১০-১২ টি

কিমাঃ ১ কাপ

রসুন বাটাঃ ১ চা চামচ

আদা বাটাঃ ১ চা চামচ

পেঁয়াজ কুচিঃ ১/২ কাপ

হলুদ গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ

মরিচ গুঁড়াঃ ১ চা চামচ

জিরা গুঁড়াঃ ১ চা চামচ

তেলঃ ১ কাপ

লবণঃ স্বাদমতো

প্রণালী:তেল গরম হলে সমস্ত মশলা অল্প অল্প করে দিন।একটু পানি দিয়ে ভালোমতো কষিয়ে কিমা দিন। কিমার পানি শুকিয়ে এলে আরো একটু গরম পানি দিন।কিমা ভাজা ভাজা করে নামান।পটল চেঁছে নিন। ভেতরের শাঁস ফেলে কিমার পুর ভরুন।প্যানে তেল গরম হলে বাকি সব মশলা কষিয়ে পটল দিন। অল্প পানি দিয়ে ঢেকে মাঝারি আঁচে রাঁধুন।মাখা মাখা হলে নামিয়ে পোলাওয়ের সাথে পরিবেশন করুন।

পটলের দোলমা

উপকরণ:

পটলঃ ৫/৬ টা (চামড়া ছাড়ানো ভিতরের বিচি ফেলে দিতে হবে)..

পেয়াজ কুচিঃ হাফ কাপ

ঢাকাই পনির/কটেজ চিজঃ হাফ কাপ

কাচা মরিচঃ ৩/৪ টা

গরম মশলা গুড়াঃ হাফ চা চামচ

হলুদ গুড়াঃ হাফ চা চামচ

টালা জিরার গুড়াঃ হাফ চা চামচ

মরিচ গুড়াঃ হাফ চা চা

ঘিঃ ৩ টে চা

তেলঃ ভাজার জন্য পরিমাণমতো

দইঃ হাফ কাপ ( দই না থাকলে ঘন দুধ দেওয়া যায়)

লবনঃ স্বাদমত

গোল মরিচ গুঁড়াঃ সামান্য

প্রণালী:

১. প্রথমে পুরের জন্য পনির গ্রেট করে একটু কাচা মরিচ কুচি একটু পেয়াজ কুচি একটু গরম মশলা গুড়ো দিয়ে হালকা তেল দিয়ে ভেজে নিতে হবে২. এবার পটলে পনিরের পুর ভরে তেলে হালকা নেড়ে চেড়ে ভেজে নিতে হবে৩. এবার ঘি গরম করে পেয়াজ কুচি ব্রাউন করে ভেজে নিয়ে গরম মশলার গুড়া বাদে বাকি সব মশলা দিয়ে কষিয়ে নিতে হবে৪. একটু পানি দিয়ে মশলা কষিয়ে নিতে হবে৫. এবার পটল দিয়ে হবে৬. এরপর দই দিয়ে কষাতে হবে৭. চুলার আচ মিডিয়ামে থাকবে৮. মশলা ভাজা ভাজা হয়ে ঘি উপরে উঠে আসলে গরম মশলার গুড়া আর স্বাদমত লবন দিয়ে নেড়চেড়ে নামিয়ে ফেলতে হবে।

নারকেল দুধে পটলের দম

উপকরণ :

পটল আধা কেজি (ছিলে সেদ্ধ করে নেওয়া),

পেঁয়াজবাটা ১ টেবিল চামচ,

আদাবাটা ১ চা–চামচ,

ছোট এলাচি ৩/৪ টি,

ঘি ও সরষের তেল একসঙ্গে ৪ টেবিল চামচ,

নারকেলের দুধ দেড় কাপ,

হলুদ আধা চা–চামচ,

শুকনো মরিচের গুঁড়া আদা চা–চামচ,

চিনি সিকি চা–চামচ,

কাঁচা মরিচ ৭/৮টি

লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি:কড়াইতে তেল ও ঘি একসঙ্গে দিতে হবে।এলাচি থেঁতো করে ফোড়ন দিতে হবে।পেঁয়াজবাটা দিয়ে নাড়াচাড়া করতে হবে।পেঁয়াজ বাদামি রং হলে হলুদ ও শুকনো মরিচের গুঁড়া দিয়ে কষাতে হবে।তেল ছাড়লে পটোলগুলো দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষাতে হবে।তারপরে নারকেলের দুধ দিয়ে মৃদু আঁচে ঢেকে রাখতে হবে।পটোল সেদ্ধ হয়ে মাখা মাখা হলে কাঁচা মরিচ দিতে হবে।সবশেষে ঘি এবং চিনি দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : আয়ান আইটি